দেশে করোনার শততম দিনে বিশ্বে ১৮ তম, নতুন পরিকল্পনায় সরকার

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা;  করোনা আক্রান্তের ১শ’ তম দিনে এসেও সংক্রমণের উর্ধ্বগতিতে বাংলাদেশ। শনাক্তের দিক দিয়ে আঠারোতম অবস্থান নিয়ে মোকাবিলার নতুন পরিকল্পনার দিকে এখন সরকার। এরই মধ্যে ঢাকার দুই সিটির মোট ৪৫টি এলাকা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হলেও এখন আসনি বাস্তবায়নের নির্দেশনা।

৮ মার্চ ২০২০ প্রথম করোনা শনাক্ত হয় বাংলাদেশে। তিন মাস পেরিয়ে ১৫ জুন শততম দিন। এরই মধ্যে শনাক্তের দিক দিয়ে আঠারোতম অবস্থানে বাংলাদেশ।

গত এক’শ দিনে সাত দফায় সাধারণ ছুটি শেষে এবার চলছে নতুন পরিকল্পনার প্রস্তুতি। আর চলমান বাস্তবতা বলছে শনাক্ত কিংবা মৃতের সংখ্যাটা এক কথায় ক্রমবর্ধমান। এরই মধ্যে সংকটের নাম টেষ্টের হার কম, হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা, আইসিউই স্বল্পতা আর অক্সিজেনের টানাপড়েন।

জনপ্রসাশনের ঘোষণা মতে চলতিমাসের প্রথম ১৫ দিনটা সীমিত পরিসরে সব খুলে দিয়ে চলছে পরীক্ষামূলক কার্যক্রম। এরই মধ্যে টেষ্ট কেস হিসেবে পূর্ব রাজাবজার হয়েছে লকডাউন। কথা ছিলো এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে নেয়া হবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত। এরই মধ্যে বেশ কিছু এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনায় তালিকা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে সেসব এলাকার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি তারা।

আইইডিসিআর বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আলমগীর বলেন, এই বিষয়ের ওপর এখনও কাজ চলছে। মোটামুটি যেসব এলাকা দেয়া হয়েছে সেসব এলাকাই হবে। এলাকাভিত্তিক ছোট ছোট জায়গায় হবে। বিশেষ করে ফোকাস থাকবে রেডজোন এলাকাতে।

অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সব মন্ত্রণারয়ের সমন্বয় নিশ্চিত করতে সময় লাগছে। করোনাকালের শততম দিনে এসে সিদ্ধান্ত গ্রহণে এমন টালমাটাল অবস্থায় কিছুটা অস্বস্তিতে সাধারণ মানুষ।

নিয়ম অনুসারে রেড জোন এলাকায় সাধারণ ছুটি ও নিত্যপণ্য সরবরাহে বিশেষ ব্যবস্থা করবে স্থানীয় সরকার বিভাগ। আর বাস্থবায়নে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর পাশাপাশি সহায়তা করবে আর্মড ফোর্সেস ডিভিশন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনের সর্বশেষ (১৫ জুন ২০২০) তথ্য অনুযায়ী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৮ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ১২০৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৯ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯০ হাজার ৬১৯ জনে।করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৫ হাজার ৭৩৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ৩৮টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো পাঁচ লাখ ১৬ হাজার ৫০৩টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে আরও তিন হাজার ৯৯ জনের মধ্যে। ফলে ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯০ হাজার ৬১৯ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ৩৮ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হলো এক হাজার ২০৯ জনের।

আমাদের বাণী ডট কম/১৫ জুন ২০২০/পিপিএম 

About আমাদের বাণী

Check Also

গাজায় ইসরাইলের আগ্রাসন, নিহত বেড়ে ১৪৩

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় আজ শনিবার সকালেও বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। গাজা থেকে হামাসও ইসরায়েলে রকেট …